ব্রেকিং:
নোয়াখালীতে বেপরোয়া কিশোর গ্যাং বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ নোয়াখালীতে ফুটবল খেলা নিয়ে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ‘রোহিঙ্গাদের যারা নিরুৎসাহিত করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা’ প্রেমিকাসহ আটকা পড়ে ৯৯৯-এ কল দিয়ে উল্টো ফাঁসলেন প্রেমিক মাদকেই মরণ বিএনপির তৃণমূলের, রিহ্যাবে অসংখ্য নেতাকর্মীরা বাবার জায়গা নেই ছেলের পাকা ঘরে ‘মামলা থেকে বাঁচতে’ মাথায় হেলমেটের বদলে ঝুড়ি পাকিস্তানে টেস্ট খেলবে না শ্রীলংকা ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী পাঁচ দিনের রিমান্ডে শুভ জন্মাষ্টমী আজ প্রাথমিকে নিয়োগ হবে ৬১ হাজার শিক্ষক নোয়াখালী জেলা প্রশাসন এর কল সেন্টার ৩৩৩ উদ্বোধন কোম্পানীগঞ্জে ১৪ বছরের সশ্রম দন্ড প্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার! ক্রিকেট খেলা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১৫ ‘ডেঙ্গু নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে একটি মহল’ শুভ জন্মদিন মোশাররফ করিম অনলাইনে কীভাবে জন্ম নিবন্ধন করাবেন? একাদশ সংসদের চতুর্থ অধিবেশন ৮ সেপ্টেম্বর দুর্নীতি নির্মূলে নিরলসভাবে কাজ করছে কমিশন

শনিবার   ২৪ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৮ ১৪২৬   ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

সর্বশেষ:
ঈদে স্বাস্থ্য বিভাগের সবার ছুটি বাতিলের সিদ্ধান্ত আলোচনার মাধ্যমেই রোহিঙ্গা সমাধান চায় বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির ব্যর্থতার দগদগে ঘা রয়েছে: ওবায়দুল কাদের জাল নোট চেনার সহজ উপায় গুজব: নায়িকা শাবনূর ‘মারা’ গেছেন!
৫১৭

ফণীতে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫৬ পরিবার পাচ্ছে নতুন ঘর

প্রকাশিত: ১২ মে ২০১৯  

নোয়াখালীতে ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫৬ পরিবারকে সরকারিভাবে নতুন ঘর করে দেয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর মাঝে এক হাজার বান্ডিল টেউটিন, ৩০ লক্ষ টাকা গৃহমঞ্জুরি, ১৭ লক্ষ টাকা জিআর ক্যাশ এবং ৫৬০ মেট্রিক টন জিআর চাল ও সাড়ে চার হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার বিতরণ করা হবে।

শনিবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ফণীদুর্গত এলাকায় পুনর্বাসন কার্যক্রমের অগ্রগতি নিয়ে আয়োজিত প্রেসব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে স্থানীয় সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী বলেন, রোববার থেকে দুর্গত এলাকায় ঘর তৈরির কাজ শুরু হবে। ঈদের আগেই নির্মাণকাজ শেষ করে ঘরগুলো গৃহহারা পরিবারগুলোর মাঝে হস্তান্তর করা হবে। পুনর্বাসন কার্যক্রমে স্বচ্ছতা বজায় রাখা হবে। এক্ষেত্রে কোনো প্রকার অনিয়ম অব্যবস্থাপনা ধরা পড়লে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

এ সময় জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস বলেন, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রণালয়ের, ‘যার জমি আছে ঘর নেই, তার নিজ জমিতে গৃহনির্মাণ’ প্রকল্প থেকে প্রতিটি ঘরের জন্য এক লক্ষ টাকা করে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রকল্পের আওতায় জেলা সদরে ১২১টি এবং সুবর্ণচরে ২৪৩টি নতুন ঘর তৈরি করা হবে। ঘরগুলো তৈরির কাজ তদারকির জন্য মন্ত্রণালয় থেকে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের কমিটিকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। কমিটির সদস্য সচিব করা হয়েছে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতাকে। এছাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি), উপজেলা প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের সদস্য করা হয়েছে।

এতে আরও বক্তব্য রাখেন- সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল আনম সেলিম, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়য়ারম্যান অ্যাডভেকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন, সুবর্ণচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু ওয়াদুদ ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার প্রমুখ।

জেলা ত্রাণ পুনর্বাসন কর্মকর্তা হামিদুল হক বলেন, ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে নোয়াখালী সদর, সুবর্ণচর ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ৬৮৯টি বাড়ি সম্পূর্ণরূপে এবং ৩৩৩টি বাড়ি আংশিক বিধ্বস্ত হয়। এতে ৬৮৯টি পরিবার খুব বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এবং ৭০টি পরিবার বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এবং ২৬৩টি পরিবার আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

নোয়াখালী সমাচার
নোয়াখালী সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর