ব্রেকিং:
নোয়াখালীতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ নোয়াখালী সুবর্ণচরে বৃক্ষরোপণ ও ডেঙ্গু সচেতনতায় সভা তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি কাদেরের ইতালির প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ সেনাবাহিনী প্রধানের সাথে ইন্দোনেশিয়ার সেনাবাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার মান নিশ্চিত করতে হবে: রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীকে ভারত সফরে মোদির আমন্ত্রণ সেদিনের শোক ভোলেননি হাছান মাহমুদ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় দণ্ডিতদের অবস্থান কেমন আছেন ২১ আগস্টে আহতরা? ভয়াল ২১ আগস্ট আজ নিঝুম দ্বীপের দেশ নোয়াখালীর লোগোর বিশ্লেষণ নোয়াখালীর সর্ববৃহৎ গোপালপুর গণহত্যার ৪৮তম বার্ষিকী নতুন মাইলফলকে পূর্ণিমা বিএনপির রাজনীতির দুর্গন্ধ বিদেশেও ছড়াবে মোমেন-জয়শঙ্কর বৈঠক আজ প্রেমিক চেয়ারম্যানকে বিয়ের দাবিতে গৃহবধূর অনশন! হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী কমছে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা ৪ অক্টোবর জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রায় ব্যাগ-পোটলা নিষিদ্ধ

বৃহস্পতিবার   ২২ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৬ ১৪২৬   ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

সর্বশেষ:
ঈদে স্বাস্থ্য বিভাগের সবার ছুটি বাতিলের সিদ্ধান্ত আলোচনার মাধ্যমেই রোহিঙ্গা সমাধান চায় বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির ব্যর্থতার দগদগে ঘা রয়েছে: ওবায়দুল কাদের জাল নোট চেনার সহজ উপায় গুজব: নায়িকা শাবনূর ‘মারা’ গেছেন!
১২

প্রায় ৪০০ বছর ধরে চলছে ‘শয়তানের লাফ’

প্রকাশিত: ৭ আগস্ট ২০১৯  

শিশুদের যাতে নজর না লাগে, এর জন্য অনেক মা-বাবাই নানা কিছু করে থাকেন। এসব কুসংস্কার অনেকের ভিতরে এমন ভাবেই থাকে যে, তারা অনায়াসেই অনেক মারাত্মক কিছু করে ফেলেন। এমনই এক ভিন্ন রীতি শয়তান তাড়ানোর উৎসব। অবাক হলেও সত্যি, স্পেনেই আছে এমন এক উৎসব।
শ্বেতশুভ্র বিছানায় গোলাপের পাপড়ি ছড়ানো। তার ওপর সারি সারি শুয়ে আছে সদ্য জন্মানো থেকে শুরু করে এক বছর বয়সি শিশু। একজন অদ্ভুত পোশাক পরিহিত লোক শিশুদের ওপর দিয়ে লাফিয়ে পার হয়ে যাচ্ছে। আর চারপাশে গোল হয়ে দাঁড়ানো শিশুদের মা-বাবা ভয় পাওয়ার বদলে উৎফুল্লবোধ করছেন।

যে দৃশ্যের বর্ণনা করা হলো সেটি উত্তর স্পেনের কাসট্রিলো ডি মুরসিয়া শহরের শিশুদের ওপর থেকে শয়তানের কু-প্রভাব তাড়ানোর উৎসবের চিত্র। উৎসবের নাম এল সাল্টো ডেল কোলাচো বা এল কোলাচো। স্প্যানিশ থেকে বাংলা করলে এর অর্থ দাঁড়ায়- শয়তানের লাফ।

এই উৎসবের বয়স প্রায় চারশ বছর। ১৬২০ সাল থেকে প্রতিবছর এই উৎসব পালিত হয়। প্রতি বছর জুন মাস মহাসমারোহে কাসট্রিলো ডি মুরসিয়া শহরে এই উৎসব পালিত হয়। চলতি বছর উৎসবটি ২৩ তারিখ পালিত হয়েছে। শহরের ক্যাথলিক রীতির অনুসারী বাসিন্দারা মনে করেন এর মাধ্যমে তাদের নবাগত সন্তানের ওপর থেকে শয়তানের কু-প্রভাব দূর হয়।

স্থানীয় স্যানটিসিমো স্যাকরামেন্টো ডি মিনারোভার পাদ্রীরা উৎসবের আয়োজন করে। যিনি শিশুদের ওপর দিয়ে দৌড়ান তিনি এই পাদ্রী সম্প্রদায়েরই একজন। তার সাজ পোশাক থাকে শয়তানের মতো। একহাতে একটি চাবুক এবং অন্যহাতে ক্যাসটেন্টোস (এক রকম স্প্যানিশ বাদ্য যন্ত্র) থাকে।

উৎসবে যেসব শিশুদের শুইয়ে রাখা হয় তাদের প্রত্যেকের জন্ম এই শহরে। কারণ এই শহরের বাইরে জন্ম নেয়া কোনো শিশু উৎসবে অংশ নিতে পারে না।

উৎসবের দিন শহরের বাসিন্দারা সন্তানের মঙ্গল কামনা করে বাড়ির দেয়ালে সাদা কাপড় ঝুলিয়ে দেন। সকাল ছয়টায় এই উৎসব শুরু হয়ে একশ শিশুর ওপর দিয়ে লাফানোর আগ পর্যন্ত চলে। শিশুদের ওপর দিয়ে লাফানো শেষ হলে এরপর শয়তানরূপী পাদ্রী যুবক-যুবতীদের ধাওয়া দেয়। যতক্ষণ শয়তান দৌড়ে যুবক-যুবতীদের ধরতে না পারে ততক্ষণ এই দৌড় চলমান থাকে।

গত চারশ বছর ধরে নিয়ম মেনে শহরটিতে এই উৎসব পালিত হয়ে আসছে। স্থানীয়রা জানান, এই দীর্ঘ সময়ে কোনো শিশু কোনো রকম দুর্ঘটনার শিকার হয়নি।

নোয়াখালী সমাচার
নোয়াখালী সমাচার