ব্রেকিং:
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ ‘স্বল্প সংখ্যক’ যাত্রী নিয়ে ৩১ মে থেকে চলবে বাস-ট্রেন-লঞ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফ্লাইট চালুর প্রস্তুতি করোনা ও অন্য রোগীদের আলাদা চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন শিল্পপ্রতিষ্ঠানসমূহকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে আরও ২ হাজার চিকিৎসক নেওয়ার পরিকল্পনা সংক্রমণ ঝুঁকিমুক্ত বিশেষ চিকিৎসা বুথ তৈরি ছুটি আর বাড়ছে না, ৩১ মে থেকে অফিস শুরু দুর্গম খাসিয়া পুঞ্জিতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন শেখ হাসিনা করোনায় সংক্রমিত পৌরসভার পিয়ন ফকির সুবর্ণচরে সরকারি চাল জব্দ, ডিলার পলাতক, ক্রেতার জরিমানা নোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু নোয়াখালীতে ডোবায় মিলল ব্যবসায়ীর লাশ হাতিয়া উপকূলে নতুন প্রজাতি আবিষ্কার করলেন নোবিপ্রবি শিক্ষক ফেনীতে মিলে আগুন! লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি শুধু যোদ্ধাই নয়, হাতে ওদের নতুন পৃথিবীও করোনার নমুনা সংগ্রহে ‘ভিটিএম কিট’ তৈরি হলো দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন কোনো ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়নি করোনা জয় করলেন ১১১৯ পুলিশ সদস্য
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

৫৬১

নোয়াখালীতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যা, দেখে ফেলায় শিশুকেও হত্যা!

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

নোয়াখালীর সদরের আন্ডার চরে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনা দেখে ফেলায় তিন বছরের কোলের শিশুকেও একই কায়দায় হত্যা করা হয়েছে। এ অভিযোগ করেছেন নিহত গৃহবধূ পান্না বেগমের বাবা আবুল কালাম ও বড় ভাই মো. হারুন।রোববার সকালে উপজেলার আন্ডারচর ইউপির ৯ নং ওয়ার্ডের কাজীর চর গ্রামের আইয়ুব আলীর বাড়ি থেকে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত গৃহবধূ পান্না কাজীর চর গ্রামের ইটভাটার শ্রমিক মো. সুমনের স্ত্রী এবং শিশু লামিয়া সুমনের মেয়ে।

সুধারাম থানা পুলিশ স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানায় উপজেলার কাজীর চর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে সুমনের স্ত্রী পান্না বেগম পারিবারিক কলহের জের ধরে শিশু সন্তান শারমিন আক্তার লামিয়াসহ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহত মা-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত গৃহবধূর শ্বশুর আইয়ুব আলী এবং শাশুড়ি হাসিনা আক্তারকে আটক করা হয়।  

নিহত গৃহবধূর বাবা আবুল কালাম ও বড় ভাই মো. হারুন অভিযোগ করে বলেন. গত পাঁচ বছর আগে কাজীর চর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে মো. সুমনের সঙ্গে পারিবারিকভাবে পান্নার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক কলহের জের ধরে শ্বশুর-শাশুড়ি ও ননদ পান্নাকে প্রায় নির্যাতন করত। শনিবার সুমনের মা হাসিনা আক্তারসহ পরিবারের লোকজন পান্নাকে নির্যাতনের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এ সময় পান্নার শিশু সন্তান শারমিন আক্তার লামিয়া ঘটনাটি দেখে ফেলায় তাকেও শ্বাসরোধ করে হত্যা করে সুমনের পরিবারের সদস্যরা। এরপর তারা পান্না এবং লামিয়ার মরদেহ ঘরের মধ্যে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলিয়ে রাখেন। নিহত গৃহবধূ, শিশু লামিয়া ও পান্নার অনাগত সন্তানের হত্যার তদন্তপূর্বক বিচার দাবি করেন পান্নার পরিবারের সদস্যরা।

সুধারাম থানার ওসি নবীর হোসেন বলেন, গৃহবধূ ও তার শিশু সন্তানের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে বিস্তারিত বলা যাবে। এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নোয়াখালী বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর