ব্রেকিং:
দেশে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ২৪২৩, মৃত্যু ৩৫ সমুদ্র সম্পদের টেকসই ব্যবহারে প্রধানমন্ত্রীর ৩ দফা প্রস্তাব পেশ প্রধানমন্ত্রীর ৫ নির্দেশনা গার্ডিয়ানে শেখ হাসিনার নিবন্ধ বিজিবিতে যুক্ত হলো অত্যাধুনিক জলযান ৮ জুন ঢাকায় আসবে চীনের করোনা বিশেষজ্ঞ দল পছন্দের শিক্ষকের পাঠদান এখন মোবাইলে অতীতের সব রেকর্ড ছাপিয়ে সর্বোচ্চ রিজার্ভ করোনা ভাইরাসের মধ্যেও থেমে নেই মেগা প্রকল্প ঘরে বসে ২ মিনিটেই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ৭ উন্নয়ন সহযোগীর কাছ থেকে সহায়তা পাচ্ছে বাংলাদেশ আ. লীগ সর্বাত্মক শক্তি নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে করোনা যোদ্ধাদের স্যালুট জানিয়ে দেয়ালচিত্র জীবাণু শঙ্কা-প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রতিরোধে সদা সচেষ্ট প্রধানমন্ত্রী অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা জীবনবাজি রেখে মাঠ পযায়ে কাজ করছে পরিবার পরিকল্পনা কর্মীরা করোনায় ফেনীর কাস্টমস কর্মকর্তার মৃত্যু নোয়াখালীতে ৪ নার্সসহ আরও ৫৯ জনের করোনা সেনবাগে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু দেশে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ২৬৯৫, মৃত্যু ৩৭
  • শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১২ শাওয়াল ১৪৪১

৬৭৩৬

নির্বাচনের আগে ভোলাকে রণক্ষেত্রে পরিণত করার পরিকল্পনা হাফিজের

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮  

নির্বাচনের আগের দিন শীর্ষ সন্ত্রাসী বাবুল বিশ্বাসকে ভোলার সাধারণ জনগণকে কোপানোর পরামর্শ দিলেন ভোলা-৩ আসনের বিএনপি প্রার্থী মেজর (অব.) হাফিজ।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শীর্ষ সন্ত্রাসী বাবুলকে ভোলা জেলার তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁচড়া ইউনিয়ন থেকে তাকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

অতঃপর বাবুল বিশ্বাসকে থানায় নিয়ে গেলে, তার মোবাইল ফোনের কল রেকর্ড চেক করতে গিয়ে বেরিয়ে আসে, ভয়াবহ এক ফোনালাপ। ২৮ তারিখ সকালে মেজর হাফিজের সঙ্গে ফোনালাপে বাবুল বিশ্বাস বলেছিলে, স্যার আপনি অনুমতি দিন, সিদ্দিক কে নিয়ে বদরপুরে (লালমোহন উপজেলার ইউনিয়ন) একত্রিত হয়ে কিছু মানুষকে আমরা কুপিয়ে দেই। মেরে ফেলবো না।

এসময় মেজর হাফিজ বলেন, এখন না, নির্বাচনের আগের দিন।

ফোনালাপটি শুনে রীতি মতো হতভম্ব হয়ে পড়েন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উক্ত কর্মকর্তা বলেন, ভাবতেই অবাক এ এলাকার মানুষ তাকে ভালোবেসে চারবার জয়যুক্ত করেছিলেন। অথচ তিনি এই ভোলার মানুষকেই কোপাতে চাচ্ছেন। এটা খুব-ই দুঃখজনক।

এ প্রসঙ্গে এলাকাবাসী বলেন, বাবুল বিশ্বাস ২০০১ থেকে ২০০৬ এর বিএনপি শাসনামলে সমগ্র ভোলাতে শত শত ঘর বাড়ি পুড়িয়ে সংখ্যালঘুদের এলাকা ছাড়া করেছিলো। টাকার বিনিময়ে খুন করা তার পেশা। তবে মেজর হাফিজের ডান হাত হওয়ায় তার বিপক্ষে কেউ কোনো কথা বলে না। ক্ষমতায় আসার আগেই যারা কোপাতে চায়, ক্ষমতায় ‍গিয়ে তারা কতোটুকু ভয়াবহ হতে পারে তা কল্পনা করতেই ভয় লাগছে।