ব্রেকিং:
জাতীয় কবির ১২১তম জন্মদিন আজ বাঙ্গালির ঈদ উৎসবে ‘রমজানের ওই রোজার শেষে’র আগমন কিভাবে? একদিনে সর্বোচ্চ ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আরও ১৫৩২ দেশবাসীকে আওয়ামী লীগের ঈদ শুভেচ্ছা ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মেরামতের কাজ শুরু করেছে সেনাবাহিনী ২৮০ ট্রান্সজেন্ডার ও হিজড়াকে ঈদ সামগ্রী প্রদান ক্ষতিগ্রস্ত ৬ হাজার পরিবারকে ৩ কোটি টাকা সহায়তা দেবে ব্র্যাক ক্ষতিগ্রস্ত ৬ হাজার পরিবারকে ৩ কোটি টাকা সহায়তা দেবে ব্র্যাক ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত ঈদ উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বহিরাগতরা হাতিয়ায়ঃ আতঙ্কে স্থানীয়রা ছাত্রলীগ নেতার ঈদ সামগ্রী বিতরণ কোম্পানীগঞ্জে স্ক্যান করে রিলিফ স্লিপ জালিয়াতি উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও থানাকে পিপিই প্রদান লকডাউন অমান্য করায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ আগামি ২৫ মে দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ১৮৭৩, মৃত্যু ২০ মসজিদে সর্বাধিক ঈদের জামাতের আয়োজন করোনা রোগীর চিকিৎসায় ৩ হাজার পদ সৃষ্টি
  • সোমবার   ২৫ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭

  • || ০১ শাওয়াল ১৪৪১

১৯১

দশমীতে নদীতে ডুবে প্রাণ গেল ভাই-বোনের

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

দশমীর দিন নৌ-বিহারে গিয়ে মর্মান্তিক পরিণতি হল দুই ভাই-বোনের। নৌকা উল্টে  যাওয়ায় পানিতে তলিয়ে মৃত্যু হল তাদের। মঙ্গলবার মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মেদিনীপুরের তমলুক থানার হরশংকর গ্রামে। দশমীর দিন তরতাজা দুটি প্রাণের অবসানে শোকের ছায়া এলাকায়।জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার নৌকায় পূর্ব মেদিনীপুরের হরশংকর গ্রামে মাছ চাষের একটি ঝিলে বেড়াতে যায় গ্রামের ৬ জন। তাদের মধ্যেই ছিলেন বছর একুশের সুতপা মাইতি ও তার ভাই উজ্জ্বল মাইতি। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, আচমকাই উল্টে যায় নৌকাটি। পানিতে তলিয়ে যায় নৌকোর ৬ জন যাত্রী। প্রাণ বাঁচাতে পানির সঙ্গে লড়াই করে কোনোক্রমে সাঁতার কেটে পাড়ে ওঠে চারজন। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ পেরিয়ে গেলেও খোঁজ মেলেনি সুতপা আর উজ্জ্বলের। এরপর খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ভিড় জমান স্থানীয়রা। ওই দু’জনকে উদ্ধার করতে তল্লাশি শুরু করে স্থানীয়রাই।

বেশ কিছুক্ষণ পর পানি থেকে উদ্ধার হয় সুতপা ও উজ্জ্বল। কিন্তু ততক্ষণে মৃত্যু হয়েছে তাদের। এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় তমলুক থানার পুলিশ। 

দশমী মানেই বিষাদ। ভারাক্রান্ত মন। তার মাঝে এই ঘটনা যেন আরো বিষাদ ঢেলে দিয়েছে চারিপাশে। খবর পৌঁছতেই কান্নায় ভেঙে পড়েছে সুতপা ও উজ্জ্বলের পরিবার। সুস্থ শরীরে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল দুই সন্তান। পরিবারের কেউ ভাবতেও পারেননি যে আর কোনো দিনই ঘরে ফিরবে না তারা। 

যে চারজন সাক্ষাত মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছেন এখনো আতংক যেন তাড়া করে বেড়াচ্ছে তাদের। ঠিক কী হয়েছিল সেই মুহূর্তে বলতে পারছে না কেউই। তবে চোখের সামনে বন্ধু বিয়োগের যন্ত্রণা কিছুতেই যেন ভুলতে পারছেন না তারা। 

আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর