ব্রেকিং:
করোনার মধ্যেই বাণিজ্য মেলা ফুলগাজীতে মেছো বাঘ আটক ফেনীতে স্বাস্থ্য কার্যক্রম পরিদর্শনে সেব্রিনা ফ্লোরা লক্ষ্মীপুর আইনজীবী সমিতি নির্বাচন ঈদে মুক্তি পাচ্ছে ”ভাইজান” নোয়াখালীতে সাংবাদিক বোরহান হত্যার তদন্তে পিবিআই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ১৩ বছর পর রায়, আসামির যাবজ্জীবন করোনায় আরো পাঁচজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪২৮ শেখ হাসিনার মতো নেতা সারাবিশ্বে পাওয়া যাবে না: ডা. দিপু মনি কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে সাধারণ মানুষও চিকিৎসা পাবেন: আইজিপি তথ্যের স্বচ্ছতা-নিরাপত্তা নিশ্চিতে ব্লকচেইন ব্যবহার করছে সরকার টিকা নিলেন শেখ রেহানা পুলিশ সদস্যদের লাল গোলাপ দিল সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা টিকায় অ্যান্টিবডির ভালো ফল মিলছে ২৫০৪ যুদ্ধাপরাধীর তালিকা রয়েছে সরকারের কাছে স্বপ্ন জাগিয়েছে মেগাপ্রকল্প সাশ্রয়ী মূল্যে সুপেয় পানি সরবরাহের সুপারিশ বন্ডের বাজারে রেকর্ড পরিমাণ লেনদেন আরও সহজ হলো প্রণোদনা প্যাকেজ টিকা কিনতে ৯৪ কোটি ডলার সহায়তা দেবে এডিবি
  • বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

  • || ১২ রজব ১৪৪২

জরিমানা গুনেছিলেন বার্গম্যান, এজলাসে বসেছিলেন দিনভর

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

ব্রিটিশ সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী ডেভিড বার্গম্যান। তবে প্রায়ই বিভিন্ন বিষয়ে বিতর্কিত, মিথ্যা ও উদ্দেশ্যমূলক তথ্য উপস্থাপনের জন্য সমালোচিত হয়ে আসছেন। ব্রিটিশ সাংবাদিক হলেও বাংলাদেশে এক পরিচিত মুখ তিনি। আর হবেন নাই বা কেন! আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশকে নিয়ে নেতিবাচক সংবাদের প্রায় সবগুলোতেই সরব উপস্থিত তার। এমনকি মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের রায় নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় জরিমানাও গুণতে হয়েছে তাকে; এজলাসে বসে থাকতে হয়েছে দিনভর।

নানামুখী ষড়যন্ত্রের বেড়াজাল পেরিয়ে স্বাধীনতার দীর্ঘ ৩৯ বছর পর ২০১০ সালে গঠিত হয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। শুরু হয় বহুল কাঙ্ক্ষিত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার। তখন থেকেই যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে নানা অপচেষ্টা চালাতে থাকেন বার্গম্যান। ব্লগিং, উন্মুক্ত সম্পাদকীয়-  যেভাবেই সুযোগ পেয়েছেন, মুক্তিযুদ্ধের মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচারপ্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা চালিয়েছেন। কিন্তু তার সব উদ্যোগই শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়েছে।  

ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন বিষয়ে সমালোচনা, ব্লগে আপত্তিকর মন্তব্য ও মুক্তিযুদ্ধে শহিদদের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় আদালত অবমাননার দায়ে ২০১৪ সালের ২ ডিসেম্বর ডেভিড বার্গম্যানকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল। অনাদায়ে ৭ দিনের কারাদণ্ড দেয়া হয় তাকে। শুধু তাই নয়, ওইদিন ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত এজলাসকক্ষে বসে থাকারও নির্দেশ দেয়া হয়।

আদেশে আদালত বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে শহিদদের সংখ্যা নিয়ে বার্গম্যান যে লেখা লিখেছেন তার মাধ্যমে একটি ঐতিহাসিকভাবে মীমাংসিত বিষয় নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টির চেষ্টা করা হয়েছে। আদালত মনে করে অসৎ উদ্দেশ্যেই এটা করা হয়েছে।

রায়ে ট্রাইব্যুনাল ঐতিহাসিক মীমাংসিত কোনো বিষয় নিয়ে সমালোচনা না করতে বার্গম্যানকে সর্বোচ্চ সতর্ক করে দেন। ব্লগে লেখার মাধ্যমে তিনি ট্রাইব্যুনালের কর্তৃত্বকে চ্যালেঞ্জ, বিচারাধীন বিষয় নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো এবং ট্রাইব্যুনালকেই প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন বলেও পর্যবেক্ষণে উল্লেখ করেন ট্রাইব্যুনাল।

আদেশে বলা হয়, বার্গম্যান ব্লগের লেখার মাধ্যমে আদালতের সম্মান ক্ষুন্নের চেষ্টা করেছেন এবং তাতে আদালতের প্রতি অসম্মন করা হয়েছে।

বিচারক তার আদেশে আরো বলেন, রায় নিয়ে সমালোচনা হতে পারে। কিন্তু বার্গম্যান একজন সাংবাদিক। সমালোচনা করার জন্য প্রয়োজনীয় একোডেমিক ও পেশাগত যোগ্যতা তার নেই।

একই সঙ্গে ডেভিড বার্গম্যান কিভাবে বাংলাদেশে সাংবাদিকতা করছেন তা খতিয়ে দেখতে সরকারকে নির্দেশ দেন ট্রাইব্যুনাল।

দীর্ঘ রায়ে বার্গম্যানের সমালোচনা করে ভবিষ্যতে এ ধরনের মন্তব্য প্রতিবেদন লেখার ক্ষেত্রে সর্তক করে দিয়ে ট্রাইব্যুনাল বলেছেন, বিশেষ গোষ্ঠী যারা ট্রাইব্যুনালের বিচারিক কার্যক্রমকে বিতর্কিত করতে চায় তাদের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করেছেন বার্গম্যান। তিনি কোনো আইনজীবী নন, শিক্ষকও নন, গবেষকও নন। তিনি একজন সাংবাদিক। কিসের ভিত্তিতে তিনি এমনটা লিখেছেন?

ট্রাইব্যুনাল বলেন, বার্গম্যান তার লেখার মাধ্যমে ট্রাইব্যুনালকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন। তাকে সতর্ক করছি, এরকম মীমাংসিত ঐতিহাসিক বিষয় নিয়ে ভবিষ্যতে যেন আর কোনো মন্তব্য বা সমালোচনা না করা হয়। 

উল্লেখ্য, ট্রাইব্যুনালে নিষ্পত্তি হওয়া মামলার বিষয়ে ২০১১ সালের ১১ নভেম্বর ও ২০১৩ সালের ২৮ জানুয়ারিতে ব্যক্তিগত ব্লগে লেখেন ডেভিড বার্গম্যান। এতে বার্গম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে ট্রাইব্যুনালে শাস্তির আবেদন জানান হাইকোর্টের একজন আইনজীবী। ট্রাইব্যুনালের বিচার প্রক্রিয়া এবং রায় সম্পর্কে ব্লগে মন্তব্য করায় বার্গম্যানের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর (শো’কজ) নোটিশ কেন জারি করা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারিরও আবেদন করেন এ আইনজীবী। 

আবেদনকারী আইনজীবী তার আবেদনে বলেন, বার্গম্যান তার নিজস্ব ওয়েবসাইটে (bangladeshwarcrimes.blogspot.com) আজাদ জাজমেন্ট অ্যানালাইসিস-১; ইন অ্যাবসেন্সিয়া ট্রায়াল অ্যান্ড ডিফেন্স ইনডিকোয়েন্সি এবং আজাদ জাজমেন্ট অ্যানালাইসিস-২; ট্রাইব্যুনাল অ্যাজাম্পশন শীর্ষক বিতর্কিত লেখা প্রকাশ করেন।

এসব লেখায় ট্রাইব্যুনালে মানবতাবিরোধী অপরাধে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আবুল কালাম আজাদ ওরফে বাচ্চু রাজাকারের রায় নিয়ে করা মন্তব্যে ট্রাইব্যুনালের মর্যাদাহানি হয়েছে বলে আবেদনে অভিযোগ করা হয়েছে। তার আবেদনে ডেভিড বার্গম্যানের ব্লগে অপর ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর রায় নিয়ে মন্তব্যেও আদালত অবমাননা করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন ওই আইনজীবী।

ডেভিড বার্গম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার বিষয়ে এ আবেদনের আগেও একবার তাকে সতর্ক করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। ২০১১ সালের ২ অক্টোবর জামায়াতের নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযোগ গঠন বিষয়ে ইংরেজি দৈনিক দ্য নিউএজের সম্পাদকীয় পাতায় বার্গম্যানের ‘আ ক্রুসিয়াল পিরিয়ড ফর আইসিটি’ শিরোনামে একটি লেখা প্রকাশিত হয়। 

ওই বছরের ৩ অক্টোবর আদালত অবমাননার অভিযোগে প্রতিবেদক ডেভিড বার্গম্যান, নিউএজের সম্পাদক নুরুল কবির এবং প্রকাশক আ স ম শহীদুল্লাহ খানের বিরুদ্ধে এর কারণ দর্শাতে রুল জারি করেন। শুনানি শেষে ২০১২ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি ট্রাইব্যুনাল তার আদেশে প্রতিবেদক ডেভিড বার্গম্যানকে সর্বোচ্চ সতর্ক করেন। 

ব্লগে ট্রাইব্যুনাল এবং ট্রাইব্যুনালের রায় নিয়ে বিতর্কিত লেখা ছাড়াও বিভিন্ন মহলে তার বিরুদ্ধে জামায়াতের পেইড এজেন্ট হিসেবে কাজ করার অভিযোগ রয়েছে। 

এদিকে, বার্গম্যানকে সহকর্মী হিসেবে কাছ থেকে দেখার অভিজ্ঞতার কথা সম্প্রতি এক আলোচনা অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী। তিনি বলেন, বার্গম্যান অপরিণত ও সাংবাদিকতার বিষয়গুলো বোঝার বাকি আছে তার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদীর বিচারে, বার্গম্যানের কাজে ‘সাংবাদিকতার চেয়ে অ্যাক্টিভিজম’ বেশি গুরুত্ব পায় এবং ‘পক্ষপাতের’ কিছু বিষয়ও সেখানে আছে।