ব্রেকিং:
দেশে করোনা বিষয়ে সচেতনতা ও টিকাদানে সহায়তা করবে ফেসবুক সরকারি বিধি-নিষেধ মেনে চলতে বিশিষ্ট নাগরিকদের আহ্বান পর্যায়ক্রমে দেশের সবাইকে টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে: প্রধানমন্ত্রী চাঁদ দেখা গেছে, কাল থেকে রোজা করোনায় আক্রান্ত হলে কতদিন পর টিকা নিতে পারবেন নিত্যপণ্য পরিবহনে সহায়তায় মন্ত্রণালয়ের হটলাইন চালু লকডাউনে বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংক খুলতে নির্দেশ জেলেদের জন্য ৩১ হাজার মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ আগামীকাল থেকে সর্বাত্মক লকডাউনে যাচ্ছে দেশ দেশে একদিনে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু কমেছে রমজানে বেঁধে দেওয়া হলো ৬ পণ্যের দাম এলপিজি সিলিন্ডারের দাম নির্ধারণ টিকা কিনতে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে ৪৩৩০ কোটি টাকার ঋণচুক্তি সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী থানাসহ গুরুত্বপূর্ণ সরকারি স্থাপনায় নিরাপত্তা জোরদার লকডাউনে চলাচল করতে ‘মুভমেন্ট পাস’ নেবেন যেভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদনে নতুন রেকর্ড গড়ল দেশ এটিএম বুথ থেকে তোলা যাবে এক লাখ টাকা লকডাউনে খাদ্য সহায়তা পাবে সোয়া কোটি দরিদ্র পরিবার মিরাজের মেডিকেলে ভর্তির দায়িত্ব নিলেন নোয়াখালীর ডিসি
  • মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৮

  • || ০১ রমজান ১৪৪২

চাটখিলে নারী নির্যাতনকারী ও নেশাখোরকে অভিনব শাস্তি

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৪ মার্চ ২০২১  

নোয়াখালীর চাটখিলে এক নারী নির্যাতনকারী ও নেশাখোরকে অভিনব উপায়ে শাস্তি দেয়া হয়েছে। বিষয়টি এখন পুরো গ্রামে আলোচিত।

বুধবার (৩ মার্চ) উপজেলার পাঁচগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহমুদ হোসেন তরুণের গ্রাম আদালতে এ শাস্তি দেয়া হয়।

ওই ব্যক্তির নাম বেলাল (২৮)। তিনি পাঁচগাঁও ইউনিয়নের লামচর গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয় এক দোকানদার জানান, বেলাল নেশা করে প্রায়ই তার স্ত্রীকে নির্যাতন করতেন। স্ত্রী এ বিষয়ে চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের কাছে অভিযোগ করেন। পরে গ্রাম আদালতে বেলালকে অভিনব শাস্তি দেয়া হয়। তার বুকে একটি প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে দেয়া হয়। তাতে লেখা ছিল-‘আমি নারী নির্যাতনকারী ও নেশাখোর, আমাকে ঘৃণা করুন’। প্ল্যাকার্ড লাগিয়ে তাকে স্থানীয় কাচারীবাজার এলাকায় চৌকিদার দিয়ে ঘুরিয়ে নিয়ে বেড়ানো হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাঁচগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহমুদ হোসেন জানান, অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন ও নেশাদ্রব্য গ্রহণের অভিযোগ ছিল। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তার বুকে এ লেখা-সম্বলিত প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে দেয়া হয়। তিনি বলেন, এতে অন্য অপরাধীরা সচেতন হবে। এলাকাবাসীও রায়ে সন্তুষ্ট।