ব্রেকিং:
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ ‘স্বল্প সংখ্যক’ যাত্রী নিয়ে ৩১ মে থেকে চলবে বাস-ট্রেন-লঞ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফ্লাইট চালুর প্রস্তুতি করোনা ও অন্য রোগীদের আলাদা চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন শিল্পপ্রতিষ্ঠানসমূহকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে আরও ২ হাজার চিকিৎসক নেওয়ার পরিকল্পনা সংক্রমণ ঝুঁকিমুক্ত বিশেষ চিকিৎসা বুথ তৈরি ছুটি আর বাড়ছে না, ৩১ মে থেকে অফিস শুরু দুর্গম খাসিয়া পুঞ্জিতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন শেখ হাসিনা করোনায় সংক্রমিত পৌরসভার পিয়ন ফকির সুবর্ণচরে সরকারি চাল জব্দ, ডিলার পলাতক, ক্রেতার জরিমানা নোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু নোয়াখালীতে ডোবায় মিলল ব্যবসায়ীর লাশ হাতিয়া উপকূলে নতুন প্রজাতি আবিষ্কার করলেন নোবিপ্রবি শিক্ষক ফেনীতে মিলে আগুন! লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি শুধু যোদ্ধাই নয়, হাতে ওদের নতুন পৃথিবীও করোনার নমুনা সংগ্রহে ‘ভিটিএম কিট’ তৈরি হলো দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন কোনো ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়নি করোনা জয় করলেন ১১১৯ পুলিশ সদস্য
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

১২৯

করোনায় আক্রান্ত হলেন যেসব বিশ্বনেতারা

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০২০  

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনার উৎকণ্ঠায় থমকে গেছে পুরো বিশ্ব। স্তব্ধ হয়ে গেছে বিশ্বায়নের গতি। বন্ধ হয়ে গেছে জল-স্থল-আকাশপথের বৈশ্বিক যোগাযোগ ব্যবস্থা। বিশ্বঅর্থনীতির চাকাও গেছে থেমে। অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে পুরো পৃথিবী।
করোনার প্রাদুর্ভাবকে এরইমধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করেছে। বিশ্বের অন্তত ১৫৩টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী ভাইরাসটি। প্রাণ কেড়ে নিয়েছে প্রায় পাঁচ হাজার ৮৩৯ মানুষের। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে প্রায় দেড় লাখে দাঁড়িয়েছে।

এমন অবস্থায় ভাইরাসের থাবায় শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন বিশ্বের খ্যাতিমান নেতারা। জনসম্পৃক্ততার কারণে তাদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা দিন দিন বাড়ছে। এরইমধ্যে বিশ্বের অনেক রাজনীতিবিদ ও তাদের পরিবারের সদস্যরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। কেউ কেউ অবস্থান করছেন কোয়ারেন্টাইনে। এমনকি রাজনীতিবিদ ও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদের ব্যক্তিদের প্রাণহানির ঘটনাও ঘটেছে। এ পরিস্থিতিতে উদ্বেগ উৎকণ্ঠ ছড়িয়ে পড়েছে দেশে দেশে।

চলুন জেনে নেয়া যাক সেই সব বিশ্বনেতাদের সর্ম্পকে যারা করোনাই আক্রান্ত।

ইরান: দেশটিতে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন রাজনীতিবিদ ও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা ব্যক্তিরা। এখন পর্যন্ত দেশটিতে অন্তত ২৩ জন সংসদ সদস্য (এমপি) করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যাদের মধ্যে দুইজনের মৃত্যুও হয়েছে। এছাড়া দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রধান ইসমাইল নাজারকেও রাখা হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে। 

কানাডা: দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগরি ট্রুডো করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। স্ত্রীসহ ট্রুডো এখন আইসোলেশনে রয়েছেন। ট্রুডো বলেছেন, তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাজ চালিয়ে যাবেন। তার শরীরের করোনার কোনো উপসর্গ দেখা যায়নি এবং করোনা পরীক্ষাও করাননি তিনি।

ইতালি: চীনের বাইরে করোনার থাবায় লণ্ডভণ্ড অবস্থা মূলত ইতালিতে। চীনের পরেই এ দেশটিতে সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত ও প্রাণ হারিয়েছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ইতালিয়ান ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা নিকোলা জিনগারেত্তি।

অস্ট্রেলিয়া: দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর শরীরে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। এক সপ্তাহের কম সময় আগে তিনি যুক্তরাষ্ট্র সফর করেন। সফরে মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার, ট্রাম্পকন্যা ও তার জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ইভাঙ্কা ট্রাম্পসহ হোয়াইট হাউসের অন্যানা কর্মকর্তা রয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্র: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন এমন গুজব চারপাশে ছড়িয়ে পড়েছিল। করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিল প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাতের পর এমন শঙ্কা তৈরি হয়। তবে হোয়াইট হাউসে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্টের শরীরে করোনার উপস্থিতি নেই।

তবে দেশটির মিয়ামি শহরের মেয়র করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার পর দেশটির ৯ আইনপ্রণেতা ‘সেল্ফ কোয়ারেন্টাইনে’ চলে গেছেন। এদের মধ্যে মার্কিন কংগ্রেসের সিনেটর ও প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য রয়েছেন।

ফ্রান্স: দেশটিতে চারজন রাজনীতিবিদের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। এরমধ্যে একজন আইনপ্রণেতা, পার্লামেন্টের এক কর্মী, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী, বাস্তুসংস্থান এবং অন্তর্ভুক্তি মন্ত্রীর প্রতিমন্ত্রী সেক্রেটারিও রয়েছেন। তাদের সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

স্পেন: গতকাল স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজের স্ত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তারা দুজনই এখন ভালো অবস্থায় রয়েছেন। স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সুরক্ষামূলক পদক্ষেপ মেনে চলছেন তারা। ইউরোপের ইতালির পর স্পেনে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ঘটেছে ভাইরাসটির।

ব্রাজিল: ব্রাজিলের যে প্রতিনিধি দল সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র সফর করেছেন তাদের মধ্যে তিনজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্টর প্রেস সেক্রেটারি, একজন সিনেটের ও ওয়াশিংটনে নিযুক্ত ব্রাজিলের সহকারী রাষ্ট্রদূত।

যুক্তরাজ্য: দেশটির জুনিয়র স্বাস্থ্যমন্ত্রী সম্প্রতি নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তার শরীরে করোনার উপস্থিতি শনাক্তের আগে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সম্প্রতি তার সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তাই এখন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীও করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ফিলিপাইন: দেশটির প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে করোনায় আক্রান্ত এক ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার পর তিনি ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হতে পারেন বলে শঙ্কা শুরু হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে তার করোনা পরীক্ষা করেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। কিন্তু প্রেসিডেন্টের শরীরের করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা যায়নি।

মঙ্গোলিয়া: চীনে একদিনের সফর শেষে দেশে ফেরার পর মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট খালতামাগিন বাত্তুলগাসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তবে এরপর প্রেসিডেন্টের করোনা পরীক্ষা করা হলেও করোনার উপস্থিতি শনাক্ত করা যায়নি।

এখন অনেকের মনে প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছে যে করোনাভাইরাসে কেন বিশ্বনেতারাই বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন? ব্রিটেনের প্রখ্যাত ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের শিক্ষক ফ্রাঙ্কোশ ব্যালোক্সের মতে, করোনাভাইরাস সমাজের প্রথমসারির মানুষের মধ্যে নেতাদের ওপরই সবচেয়ে বেশি থাবা বসিয়েছে। এর কারণ তারা বেশি সংখ্যক মানুষের সংস্পর্শে আসছেন। সে কারণেই তারা আক্রান্ত হচ্ছেন।

আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর