ব্রেকিং:
জাতীয় কবির ১২১তম জন্মদিন আজ বাঙ্গালির ঈদ উৎসবে ‘রমজানের ওই রোজার শেষে’র আগমন কিভাবে? একদিনে সর্বোচ্চ ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আরও ১৫৩২ দেশবাসীকে আওয়ামী লীগের ঈদ শুভেচ্ছা ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মেরামতের কাজ শুরু করেছে সেনাবাহিনী ২৮০ ট্রান্সজেন্ডার ও হিজড়াকে ঈদ সামগ্রী প্রদান ক্ষতিগ্রস্ত ৬ হাজার পরিবারকে ৩ কোটি টাকা সহায়তা দেবে ব্র্যাক ক্ষতিগ্রস্ত ৬ হাজার পরিবারকে ৩ কোটি টাকা সহায়তা দেবে ব্র্যাক ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত ঈদ উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বহিরাগতরা হাতিয়ায়ঃ আতঙ্কে স্থানীয়রা ছাত্রলীগ নেতার ঈদ সামগ্রী বিতরণ কোম্পানীগঞ্জে স্ক্যান করে রিলিফ স্লিপ জালিয়াতি উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও থানাকে পিপিই প্রদান লকডাউন অমান্য করায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ আগামি ২৫ মে দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ১৮৭৩, মৃত্যু ২০ মসজিদে সর্বাধিক ঈদের জামাতের আয়োজন করোনা রোগীর চিকিৎসায় ৩ হাজার পদ সৃষ্টি
  • সোমবার   ২৫ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭

  • || ০১ শাওয়াল ১৪৪১

১৭

এই সময়ে বিলম্বে কর দিলেও জরিমানা নয়

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ৯ মে ২০২০  

করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বিচার কার্যক্রম চালানোর জন্য নতুন অধ্যাদেশ প্রণয়ন করতে যাচ্ছে সরকার। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে ‘আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ-২০২০’ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ফলে রাষ্ট্রপতির অনুমতি পেলে ভিডিও কনফারেন্সিংসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যমে বিচারকাজ চালানোর উদ্যোগ নিতে পারবেন আদালত। এ ছাড়া মন্ত্রিসভার বৈঠকে আরো দুটি আইন ও অধ্যাদেশের সংশোধনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনজন মন্ত্রীর মধ্যে ছিলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদসচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত সরকারি গণমাধ্যমকে জানান। পরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান খান এসব তথ্য সাংবাদিকদের জানান। আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘প্রস্তাবিত অধ্যাদেশটি কার্যকর হলে বিদ্যমান প্রেক্ষাপটে ভিডিও কনফারেন্সিংসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যমে বিচার কার্যক্রম পরিচালনা করা সম্ভব হবে।’

মন্ত্রিসভায় ইনকাম ট্যাক্স (সংশোধন) অধ্যাদেশ-২০২০ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে যাঁরা নির্ধারিত সময়ে আয়কর জমা দিতে পারেননি, তাঁদের কোনো ধরনের জরিমানার সম্মুখীন হতে হবে না। বিদ্যমান আইন অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আয়কর জমা দিতে না পারলে জরিমানা দিতে হয়। এর বিকল্প কোনো পথ প্রচলিত আইনে নেই। নতুন সংশোধনের অধ্যাদেশটি রাষ্ট্রপতির অনুমোদন পেলে মহামারি, যুদ্ধাবস্থা, নিয়ন্ত্রণবহির্ভূত পরিস্থিতি বা অন্য কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে কেউ নির্ধারিত সময়ে আয়কর দিতে না পারলে সে বিষয়গুলো বিবেচনায় নিতে পারবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড।

মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাওয়া তৃতীয় বিষয়টি হলো ‘মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক (সংশোধন) আইন- ২০২০’। সর্বশেষ ২০১২ সালে প্রণীত এই আইনটিতেও নির্ধারিত সময়ে মূল্য সংযোজন কর রিটার্ন দাখিলে বাধ্যবাধ্যকতা রয়েছে। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে গত দুই মাসে অনেক ব্যবসায়ী ও ব্যক্তি তা প্রতিপালন করতে পারেননি। এ কারণে সরকারের পক্ষ থেকে আইনটি সংশোধনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আইনের ৬৪ ধারায় নতুন একটি উপধারা যুক্ত করা হচ্ছে। এতে বলা হয়েছে, ‘প্রাকৃতিক দুর্যোগ, মহামারি ও জরুরি অবস্থার কারণে জনস্বার্থে বোর্ড সুদ ও জরিমানা পরিশোধ ব্যতীত দাখিলপত্র পেশের সময়সীমা বর্ধিত করিতে পারিবে।’

পুলিশ সদস্যরা যে হারে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন তা নিয়ে চিন্তিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল মন্ত্রিসভা বৈঠকে পুলিশের আক্রান্তের এই হার নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় প্রধানমন্ত্রী পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসায় যেন কোনো ধরনের গাফিলতি না হয় তা নিশ্চিত করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন। এ ছাড়া করোনা সংক্রান্ত সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর