ব্রেকিং:
হাতিয়ার রাজনীতিতে আসছে পালা বদল হাতিয়ায় বিপুল পরিমাণ কারেন্ট জাল উদ্ধার নেহাকে জোর করে চুমু, ভাইরাল সেই ভিডিও ৩০টি দেশে যাচ্ছে লক্ষ্মীপুরের জুতা নোয়াখালীতে বাজেট অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতা-২০১৯ তথ্য প্রযুক্তিতে নারীর অংশগ্রহণ বাড়ছে গৃহবধূকে যৌতুকের জন্য হত্যা মাছ ধোয়ার সহজ পদ্ধতি জানা আছে তো? নিজ বাড়িতে মিলল বৃদ্ধের মরদেহ একা পেয়ে ভাতিজিকে চাচার ধর্ষণ সড়ক দুর্ঘটনায় নোয়াখালী প্রবাসী নিহত ব্লাড ডোনেট ক্লাব এর বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান ২৪ অক্টোবর আমেরিকা প্রবাসীর রহস্যজনক মৃত্যু রক রাজার ‘ডায়েরি’ ঘুমন্ত স্বামীর গলায় ছুরি চালালেন স্ত্রী সিরাজুল ইসলাম মেডিকেলের নতুন সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হাতিয়ায় বহুল প্রতীক্ষিত আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নোবিপ্রবিতে খাদ্য দিবস উৎযাপন সেনবাগে ফ্রী ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পিং জেঠার লালসার শিকার ভাতিজী!

শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৩ ১৪২৬   ১৯ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
একবছরে পাঁচগুণ মুনাফা বেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আমাজন বাঁচাতে লিওনার্দোর ৫০ মিলিয়ন ডলারের অনুদান রাজধানীতে চার জঙ্গি আটক ১৬২৬৩ ডায়াল করলেই মেসেজে প্রেসক্রিপশন পাঠাচ্ছেন ডাক্তার জোরশোরে চলছে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ
৪৮৭

ইলিশ মাছ নিধন বন্ধে সরকারি খাদ্য সহায়তা

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০১৯  

প্রজনন মৌসুমে ‘মা-ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান-২০১৯’ বাস্তবায়ন সংক্রান্ত জাতীয় টাস্কফোর্সের সভায় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ৯ থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত মোট ২২ দিন প্রজনন ক্ষেত্রের ৭ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় সবধরণের মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুত, বাজারজাতকরণ এবং ক্রয়-বিক্রয় সম্পূণরুপে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সরকার।

সেই মোতাবেক লক্ষ্মীপুরের চর আলেকজেন্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনাল পর্যন্ত একশত কিলোমিটার এলাকায় ইলিশসহ সবধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ থাকবে। এসময় জেলেরা জনপ্রতি সরকারী বরাদ্ধের ২২ কেজি চাউল খাদ্য সহয়তা পাবে।সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জেলা, উপজেলায় পৃথক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসব সভায় মা ইলিশ রক্ষায় শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। এছাড়া জনসাধারণকে এ বিষয়ে উদ্বুদ্ধকরণে প্রচার প্রচারণা এবং জেলেদের নিয়ে জনসচেতনতামূলক সমাবেশ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞার সময় সংশ্লিষ্ট এলাকায় বরফকল সমুহ বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

জেলা মৎস্য অফিসের প্রধান সহকারী বেলায়েত হোসেন জানান, জেলায় ৪ উপজেলায় মোট ৫০ হাজার ২৫২ জন নিবন্ধিত জেলের মধ্যে ইলিশ জেলের সংখ্যা ৪৩ হাজার ৪৭২জন।ভিজিডি কার্ডের আওতায় সদর উপজেলায় ৪ হাজার ৮১৩ জন, রায়পুর উপজেলায় ৬ হাজার ৩৭ জন, রামগতি উপজেলায় ১৬ হাজার ২০৫ জন এবং কমলনগর উপজেলায় ১০ হাজার ২৭১ জন জেলে ২২ কেজি চাউল খাদ্য সহয়তা পাবে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এস এম মহিব উল্যা জানান, স্পীড বোট নিয়ে বিশেষ অভিযানের পাশাপাশি এবার পুলিশ, কোষ্টগার্ড একসাথে নদীতে অভিযান পরিচালনা করবে। নিষেধাজ্ঞা যারা মানবে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া মাছঘাঁট, আড়ত, হাটবাজারসহ সংশ্লিষ্ট এলাকায়ও ঐ ২২দিন অভিযানও পরিচালনা করা হবে। কোন প্রকার বিক্রি, মজুদজাত এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চলবে।

নোয়াখালী সমাচার
নোয়াখালী সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর