ব্রেকিং:
ফেনীতে দুই বছর পূর্ণ করলেন জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজজামান ৬ বছরের শিশু ধর্ষণ, আদালতে জবানবন্দি মাথা গোজার ঠাঁই চান ছাগলনাইয়ার ষাটোর্ধ গোলনাহার রামগঞ্জে সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন লক্ষ্মীপুরে ‘আবর্তন’এর পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান দেশে একদিনে ৩৩ মৃত্যু, আক্রান্ত ২৯৯৬ তালিকা হচ্ছে বৈধ-অবৈধ হাসপাতালের মাস্ক পরা নিশ্চিতে নামবে ভ্রাম্যমাণ আদালত জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫.২৪% বাংলাদেশের নারী কর্মকর্তাদের ভূয়সী প্রশংসা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা বিনামূল্যে ফসলের বীজ-চারা পাবেন সরকারের পদক্ষেপে সিনহার মা বোনের সন্তোষ দীর্ঘস্থায়ী বন্যার আশঙ্কায় প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধুর পররাষ্ট্রনীতিতে শিক্ষাক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য নেতৃত্ব হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পের ব্রিফিং, বাইরে গোলাগুলি স্কুলছাত্রীর মৃত্যু, হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ফেনী কলেজের ৭ শিক্ষকের অধ্যাপক পদে পদোন্নতি নোয়াখালীর ৪৬ প্রতিবন্ধী পেল চিকিৎসা সহায়তার চেক মাথা গোজার ঠাঁই চান গোলনাহার
  • বুধবার   ১২ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭

  • || ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

২০

অশ্লীল ছবি ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, আটক ১

নোয়াখালী সমাচার

প্রকাশিত: ২২ জুলাই ২০২০  

সাইবার ক্রাইম করায় মঙ্গলবার দুপুরে ফেনীর মহিপালে একজনকে আটক করেছে র‌্যাব। নারীর মুখ অশ্লীল ছবির সঙ্গে সম্পাদনা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়ের অভিযোগে নজরুল ইসলামকে আটক করা হয়। 

তিনি নোয়াখালীর সেনবাগ কালিপুরের আব্দুস সাত্তারের ছেলে। 

ফেনীর র‍্যাবের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. নুরুজ্জামান জানান, আমাদের কাছে এক ব্যক্তি বিভিন্ন অশ্লীল ছবির সঙ্গে তার ছোট বোনের মুখ লাগিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগ জানায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালের ভয় দেখিয়ে ১ লাখ টাকা দাবি করে গত ১৭ জুলাই ৫০ হাজার টাকা নেন। বাকি ৫০ হাজার টাকা নেয়ার জন্য ফেনীর মহিপালের স্টার লাইন বাস কাউন্টারের সামনে আসলে নজরুল ইসলামকে আটক করা হয়।

নজরুল তার অপকর্ম স্বীকার করেছেন বলে জানায় র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে ১টি মোবাইল সেট ও ১টি সীমকার্ড উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানান, ছবি এডিট করে এর আগেও বিভিন্ন জনের কাছ থেকে টাকা আদায় করেছেন।    

পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আসামিকে ফেনীর দাগনভূঞা থানায় হস্তান্তর প্রক্রিয়াধীন বলে জানান পুলিশ সুপার মো. নুরুজ্জামান।

সারাবাংলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর